Reliance jio 5G পরিষেবার ঘোষণা কি আজই? ৪৪তম বার্ষিক সম্মলনের দিকে তাকিয়ে দেশ - WEBMULTICHANNEL

Header Ads

Reliance jio 5G পরিষেবার ঘোষণা কি আজই? ৪৪তম বার্ষিক সম্মলনের দিকে তাকিয়ে দেশ

                                                       



আজ কী কী চমক দেবেন রিল্যায়ান্স সুপ্রিমো মুকেশ আম্বানি, সে দিকে তাকিয়ে গোটা দেশ। রিল্যায়ান্স ইন্ডাস্ট্রিজের ৪৪ তম বার্ষিক সভা (এজিএম) আজ। সেখানে গুরুত্বপূর্ণ কিছু ঘোষণা করতে পারেন আম্বানি। রিল্যায়ান্স ৫জি পরিষেবা আজ থেকেই চালু হবে কিনা নজর থাকবে সেদিকেও। তাছাড়া রিলায়্যান্স জিও-র জনপ্রিয় অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্ম জিওমার্ট সংযুক্ত হতে চলেছে হোয়াটসঅ্যাপের সঙ্গে, সে বিষয়েও জরুরি ঘোষণা করতে পারেন রিল্যায়ান্স সুপ্রিমো। জিওবুক ল্যাপটপ ও সৌদি আরবের আরমকো সংস্থার সঙ্গে চুক্তির ব্যাপারটিও উঠে আসতে পারে আজকের বৈঠকে। প্রযুক্তির পরিসরে ভারতে গোটা বাজারই প্রায় দখল করে রেখেছে মুকেশ আম্বানির সংস্থা রিল্যায়ান্স ইন্ডিয়া লিমিটেড। দেশবাসীর হাতে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা আগেই তুলে দিয়েছে রিল্যায়ান্স জিও, দেশের ডেটা পরিষেবার খোলনলচেও বদলে দিয়েছে মুকেশ আম্বানির সংস্থা। দেশের টেলিকম পরিষেবায় ফের বড়সড় বদল আনার পরিকল্পনা মুকেশ আম্বানির। দেশ জুড়ে ৫জি পরিষেবা চালু করতে বহুজাতিক প্রযুক্তি সংস্থা কোয়ালকম-এর হাত ধরেছে মুকেশের জিও। ৪জি পরিষেবা চালু করে দেশের টেলিকম ব্যবসার অভিমুখ বদলে দিয়েছিল মুকেশের সংস্থা। ফের সেই দৃশ্য দেখা যেতে পারে ৫জি পরিষেবার ক্ষেত্রেও। এর ফলে ৫ জি পরিষেবা আছে এমন দেশের তালিকায় ভারত যেমন উঠে আসবে, তেমনই আত্মনির্ভর ভারত গড়ার লক্ষ্যেও আরও কয়েকধাপ অগ্রগতি হবে। ৫জি পরিষেবার সঙ্গে এই পরিষেবা ব্যবহার করার জন্য উপযুক্ত কম দামি ফোনও বাজারে আনবে জিও। এই মুহূর্তে দেশে জিওর গ্রাহকের সংখ্যা ৪০ কোটির বেশি। এই প্রথম কোনও টেলিকম সংস্থার এত গ্রাহক রয়েছে। নিজেদের পরিষেবা আরও বাড়াতে এবার ৫জি পরিষেবা আনছে জিও। এই কাজে ফেসবুক, গুগলের সঙ্গেও জোট বেঁধেছে মুকেশের সংস্থা। 'জি' মানে জেনারেশন। ৫জি হল পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক পরিষেবা। ১জি, ২জি দিয়ে যে ডিজিটাল নেটওয়ার্কের সূচনা হয়েছিল তার আধুনিকীকরণ হয়ে ৩জি পেরিয়ে ৪জি-র জমানায় রয়েছে মানব সভ্যতা। এর আগামী সংস্করণ হল ৫জি। যদিও পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক চলে এসেছে বিশ্বের অনেক দেশেই। চিন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়াতে এখনই ৫জি প্রযুক্তি রয়েছে। ডিজিটাল নেটওয়ার্কের এই দৌড়ে সামিল হতে চলেছে ভারতও। রিল্যায়ান্সের হাত ধরেই সেই নতুন ডিজিটাল সভ্যতার জগতে পা রাখার সময় চলে এসেছে বলেই মনে করা হচ্ছে। এই মুহূর্তে রিল্যায়ান্স ইন্ডাস্ট্রিজের আরও একটা বড় পরিকল্পনা হল জিওমার্ট পরিষেবা। রিল্যায়ান্স ইন্ডাস্ট্রিজের জিও প্ল্যাটফর্ম এবং ফেসবুক ও তার অধীনস্থ মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ—এই বাঁধনেই এক উন্নত ডিজিটাল ভারত গড়ার লক্ষ্যে এগোতে চলেছে মুকেশ আম্বানির সংস্থা। জিও-র অন্যতম বড় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম হল জিওমার্ট। যাকে রিল্যায়ান্স বলছে 'দেশ কি ন্যায়ি দুকান'। দেশের ছোট ও ক্ষুদ্র মুদিখানা ও স্টেশনারি দোকানগুলিকে এক ছাতার তলায় এনে নতুন ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। আর হোয়াটসঅ্যাপের সঙ্গে জিওমার্ট সংযুক্ত হয়ে গেলে সুবিধা অনেক। কারণ ভারতে এখনও অবধি হোয়াটসঅ্যাপ বিপুল জনপ্রিয়। তাই দুই সংস্থার যুগলবন্দিতে এক নতুন সম্ভাবনার পথ খুলে যাবে।

No comments

Theme images by 5ugarless. Powered by Blogger.